ঢাকা | মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০

তিন পান্ডবের পাঁচ সেঞ্চুরি, ইমপ্যাক্টে এগিয়ে.....

মশিউর রহমান শাওন
প্রকাশিত: ১৯ মে ২০২৩ ১৪:৫৫

ফাইল ছবি ফাইল ছবি

মশিউর রহমান শাওন: ১৯৯৯ থেকে ২০১৯! ওয়ানডে বিশ্বকাপের ৬ আসরে বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করেছে ৫৫ জন৷ এত সদস্যের মাঝে সেঞ্চুরি করেছেন মাত্র তিনজন৷ মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ দিয়ে শুরু, আর সবশেষটা মুশফিকুর রহিমের ব্যাটে৷ মাঝের জন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান৷ তিন পান্ডব মিলে করেছেন পাঁচ সেঞ্চুরি৷

৯ মার্চ ২০১৫! বিশ্বকাপ মঞ্চে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সেঞ্চুরি৷ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অ্যাডিলেড ওভালের সে ম্যাচে রিয়াদ করেছিলেন ১০৩ রান৷ প্রথম ম্যাজিকাল ফিগার স্পর্শ করার দিনে রিয়াদ খেলেছেন ১৩৮ বল৷

রিয়াদ এই ১৩৮ বলের ৫১.৫৪ শতাংশ বলে কোন রান করতে পারেননি৷ বলের হিসাবে সংখ্যাটি ৭১৷ বিপরীতে রান পেয়েছেন ৬৭ বলে৷ শতকরা হিসেবে যা ৪৮.৫৫%৷

রিয়াদ পুরো ইনিংসে স্ট্রাইক রোটেট করে নিয়েছেন ৬৩ রান৷ যা ব্যক্তিগত মোট রানের ৬১.১৫ শতাংশ৷ ৫০ সিংগেল (৪৮.৪৫%) , ৫ ডাবল (৯.৭০%), আর ত্রিপল (২.৯১%) ছিল একটি৷

প্রান্ত বদলের পাশাপাশি রিয়াদ বল সীমানা ছাড়া করেছেন ৯ বার৷ ৭ বাউন্ডারির (২৭.১৮%) সাথে ওভার বাউন্ডারি (১১.৬৫%) ছিল ২টি৷ অর্থাৎ প্রায় ৩৮.৮৫ শতাংশ রান বাউন্ডারি থেকে করেছেন সাইলেন্ট কিলার৷

বিশ্বকাপে করা এই শতকটি রিয়াদের ক্যারিয়ারেও প্রথম৷ পরের ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেও তিনি করেছিলেন শতক৷ এরমধ্য দিয়ে বিশ্বকাপে টানা দুই শতকের রেকর্ডে তুলেছেন নিজের নাম৷

১৩ মার্চ ২০১৫! বাংলাদেশ সেদিন হারলেও রিয়াদের ১২৩ বলে ১২৮ রানের ক্যামিও থেকে যাবে সংগ্রহশালায়৷ এই ম্যাচে আগের তুলনায় ডট খেলেছেন কম৷ নিজের পুরো ইনিংসে ৫৪ বল ছিলেন রানশূন্য৷ শতকরা হিসেবে যা ৪৩.৯০%৷ রিয়াদের ব্যক্তিগত রান করেছেন ৬৯ বা ৫৬.০৯ শতাংশ বল থেকে।

রিয়াদের মোট রানের ৪৮.৪৩ % এসেছে স্ট্রাইক রোটেট করে৷ যেখানে ছিল ৪৪ সিংগেল (৩৪.৩৭%) আর ছিল ৯ ডাবল (১৪.০৬%)৷ বাকি ৫১.৫৬ শতাংশ রান রিয়াদ করেছেন ১২ চার (৩৭.৫%) ও ৩ ওভার বাউন্ডারি (১৪.০৬% ) থেকে৷

২০১৯ বিশ্বকাপ সাকিব করেছেন রাজত্ব৷ দল ভালো করলে হতে পারতেন টূর্ণামেন্ট সেরা খেলোয়াড়৷ ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স সাকিব করেছেন বাজিমাত৷ একইসাথে ঝুলিতে যোগ করেছেন টানা দুই শতকের কীর্তি৷

৮ জুন ২০১৯! ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সাকিব খেললেন ১১৯ বলে ১২১ রানের এক ইনিংস৷ এই ইনিংসে সাকিব রান করতে পারেননি ৩৭.৮১% বা ৪৫ টি বলে৷ বাকি ৭৪ বা ৬২.৮১ শতাংশ বলে করেছেন ডমিনেট৷

সাকিব স্ট্রাইক রোটেট করেই করেছেন ৫৫.৬১ শতাংশ রান৷ ৫২ সিংগেল (৪৪.৯৭ শতাংশ), ৬ ডাবল (৯.৯১ শতাংশ), আর এক ত্রিপল (২.৪৭) ছিল ইনিংসটিতে৷ বাকি ৪৪.৬১ রান সাকিব করেছেন ১২ চার (৩৯.৬৬ শতাংশ) আর ১ ছয় (৪.৯৫ শতাংশ) থেকে৷

রিয়াদের টানা সেঞ্চুরির রেকর্ড ভাগ বসিয়েছেন সাকিব৷ ১৭ জুন পরের ম্যাচেই উইন্ডিজের বিপক্ষে স্পর্শ করেছেন ম্যাজিকাল ফিগার৷

৯৯ বলের ব্যক্তিগত ইনিংসে সাকিব ডট খেলেছিলেন ৩২ টি বল ৷ শতাংশের হিসেবে যা ৩২.৩২% ৷ আর রান করেছেন ৬৬ বা ৬৬.৬৬ শতাংশ বল থেকে৷

বিশ্বকাপে দ্বিতীয় সেঞ্চুরির দিন সাকিব থেমেছেন ১২৪ রানে৷ প্রান্ত বদল করে নিয়েছেন রানের ৪৮.৩৭ শতাংশ ৷ ৪১ সিংগেল (৩৩.০৬ শতাংশ), ৮ ডাবল (১২.৯০ শতাংশ), এক ত্রিপল (২.৪১ শতাংশ) রয়েছে ইনিংসটিতে৷

সাকিব এ ম্যাচে ১৬ বাউন্ডারিতে পেয়েছেন ব্যক্তিগত রানের ৫১.৬১ শতাংশ রান৷ বল হাওয়ায় ভাসিয়ে সীমানা ছাড়া করতে এদিন শতভাগ অসফল বিশ্বসেরা৷

রিয়াদ-সাকিবের পর দেশের তৃতীয় ক্রিকেটার হিসেবে বিশ্বকাপ শতক পেয়েছেন মুশফিকুর রহিম৷

২০ জুন ২০১৯ অস্ট্রেলিয়া বিপক্ষে ৯৭ বলে ১০২ রান করেছিলেন লিটল মাস্টার৷

৬৭.০১ শতাংশ বা ৬৫ বল থেকে রান করা মুশফিক ডট খেলেছেন ৩২ বা ৩২.৯৮ শতাংশ বল৷


ম্যাজিকাল ফিগার স্পর্শের দিন মুশফিক ৫৮.৮১ শতাংশ রান করেছেন স্ট্রাইক রোটেট করে৷ যার মধ্যে ৪৪ সিংগেল থেকে ৪৭.০৫ শতাংশ ও ৬ ডাবল থেকে এসেছে ১১.৭৬ শতাংশ রান৷ মুশফিক বাকি ৪১.১৭ রান করেছেন বাউন্ডারি থেকে৷ যেখানে ৯ চারে ৩৫.২৯ শতাংশ আর ১ ছয়ে ৫.৮৮ শতাংশ রান৷

বিশ্বকাপে তিন জনের পাঁচ শতকের দিনে বাংলাদেশ সফল হয়েছে দুইবার৷ ২০১৫ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে রিয়াদ হয়েছেন ম্যাচ সেরা৷ অপরদিকে উইন্ডিজের বিপক্ষে ২০১৯ সালে সাকিব হয়েছেন ম্যাচের সেরা খেলোয়াড়৷ বাকি তিন ম্যাচে হেরেছে বাংলাদেশ৷

বিশ্বকাপে ২৯ ম্যাচ খেলা সাকিবের রান ১১৪৬৷ ২৯ ম্যাচে মুশফিকের ৮৭৭ রান৷ এই রান নিয়ে রয়েছেন দ্বিতীয় অবস্থানে৷ চতুর্থ অবস্থানে থাকা রিয়াদ করেছেন ১৭ ম্যাচে ৬১৬ রান৷

 

-নট আউট/এমআরএস



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর

তিন পান্ডবের পাঁচ সেঞ্চুরি, ইমপ্যাক্টে এগিয়ে.....

বিশ্বকাপে ২৯ ম্যাচ খেলা সাকিবের রান ১১৪৬৷ ২৯ ম্যাচে মুশফিকের ৮৭৭ রান৷ এই রান নিয়ে রয়ে...

৬, ৬, ৬, ৬, ৬—‘রিংকু সিং’ হ্যাভ ডান ইট!

শেষ ওভারে এমন খুনে ব্যাটিং এর আগে কেউ দেখেনি বোধহয়।

তাকে সময় দিন, যেন সে হারিয়ে না যায়

‘২০১৬ সালে রিজওয়ানের সাথে ক্রিকেট নিয়ে কাজ করেছিলাম। সেসময়ে যেহেতু তার বয়স কম ছিল, দু...