ঢাকা | বৃহঃস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১

স্পন্সর ছাড়াই শুরু হচ্ছে বিসিএল

নট আউট ডেস্ক
প্রকাশিত: ৪ ডিসেম্বর ২০২৩ ১২:২৪

ছবি সংগৃহীত ছবি সংগৃহীত

নট আউট ডেস্কঃ প্রতিবেশি দেশে প্রতিবছর জাকজমক ভাবে আয়োজন করা হয় আইপিএল। কয়েক হাজার কোটি টাকার লেন-দেন চলছে এই টূর্ণামেন্ট ঘিরে। অসংখ্য দিন ম্যাচ পাতানোর অভিযোগ উঠছে বিভিন্ন মাধ্যমে। তবে শ্রেয়াস আইয়ার, রিংকু সিংদের মত খেলোয়াড় যখন পারফর্ম করে জাতীয় দলে আসে তখন অভিযোগের চেয়ে প্রাপ্তি থাকে বেশি। তবে আইপিএল নয়, ভারতীয় ক্রিকেট বদলেছে লংগার ভার্সনের জন্য। এমন মন্তব্য দিন কয়েক আগে করেছিলেন সৌরভ গাঙ্গুলী। 

পাকিস্তানের একটা টিভি চ্যানেলকে ভারতীয় দাদা বলেছিলেন, আইপিএলের বদৌলতে ভারতীয় ক্রিকেট বদলে যায়নি। টি-টোয়েন্টিতে বিপুল টাকা আসতে পারে। কিন্তু ক্রিকেটার তৈরি করে লংগার ভার্সন।

সৌরভ গাঙ্গুলীর এই কথাকে অস্বীকার করার সুযোগ নেই। খেলোয়াড় তৈরিই হয় লংগার ভার্সন থেকে। চিরন্তন এই সত্য জানার পরেও বাংলাদেশের লংগার ভার্সন বরারবই অবহেলিত। এই যেমন আগামীকাল শুরুতে হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগ (বিসিএল)। যেখানে চারটি দল চালানোর মত স্পন্সর খুঁজেই পায়নি বিসিবি। 

২০১৩ সালে জাতীয় লিগের (এনসিএলের) পাশাপাশি বিসিএল চালু করেছিল বিসিবি। এটি হওয়ার কথা ছিল ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক। তবে লম্বা এই সময়েও পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারেনি বোর্ড। 

গত বছর একটি দলকে স্পন্সর করেছিল ইসলামী ব্যাংক। এবার সেটিং মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে ওয়ালটনের মত স্পন্সরপ্রদানকারী প্রতিষ্ঠান। একদিন আগেও নিশ্চিত হয়নি কোন প্রতিষ্ঠান হবে টাইটেল স্পন্সর। যার ফলে চারটি দলের খরচ বহন করতে হবে বোর্ডকে। প্রতিবছর গড়ে দল প্রতি খরচ হয়ে থাকে দেড় কোটি টাকা। 

গত বছর মিরপুরে অনুষ্ঠিত হয়েছিল বিসিএল-ওয়ানডের ফাইনাল। যেখানে বোর্ড প্রধান নাজমুল হাসান পাপনের সামনে তুলে ধরা হয় স্পন্সর সংকটের কথা। সাংবাদিকদের কাছ থেকে সংকটের কথা শুনে অবাক হয়েছিলেন তিনি। উত্তরে বলেছিলেন, ‘পাওয়া যায়নি এমন নয়। আমার মনে হয়েছে, ওরা চেষ্টাই করেনি ।

বোর্ড প্রধান পাপন এখানে ওরা বলতে মার্কেটিং বিভাগকে ইঙ্গিত করেছিলেন। সেই বিভাগকে এবার দোষারোপ করেছেন টূর্ণামেন্ট কমিটির প্রধান সাজ্জাদুল আলম ববিও। 

স্পন্সর সংকট প্রশ্নে ববি বলেছেন,  ‘এই প্রশ্ন মার্কেটিং বিভাগকে করতে হবে। গত বছরও তিনটি দলের স্পনসর ছিল না। শুধু ইসলামী ব্যাংক ছিল। ওদের চুক্তি শেষ হয়ে গেছে। বারবার মনে করিয়ে দিয়েছি। ওরা (মার্কেটিং) হয়তো এগোতে পারেনি। কিন্তু খেলা তো আর বন্ধ করা যাবে না। আমরা বর্ষাকালে লংগার ভার্সন আয়োজন করতে পারব না। স্পনসর পেলে আমাদের কিছুটা খরচ লাঘব হতো।’

 

-নট আউট/এমআরএস



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর

মিরাজের অলরাউন্ডার নৈপুণ্যে জিতল সাউথ জোন

নর্থ জোনের পক্ষে একাই ৫ উইকেট নেন পেসার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন।

রাব্বি-এবাদতে চড়ে বড় জয় ইস্ট জোনের

আফিফের উইলো থেকে আসে ২৭ রান। শেখ মেহেদী ২০ ও তামিম ইকবাল করেন ১৮ রান।

আকবরের নেতৃত্বে এনসিএলে চ্যাম্পিয়ন রংপুর

সিলেটকে ৫ উইকেটে হারিয়ে ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) ২৪তম আসরের শিরোপা...