ঢাকা | মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০

টেস্টে অনীহা বিসিবির, মমিনুলদের ভবিষ্যত কি তবে অন্ধকার ?

নট আউট ডেস্ক
প্রকাশিত: ৩১ জানুয়ারী ২০২৪ ১২:৩০

ছবি সংগৃহীত ছবি সংগৃহীত

নট আউট ডেস্কঃ মার্চের শেষ দিকে বাংলাদেশ সফরে আসবে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল। সফরে ৫ টি-টোয়েন্টির সাথে ২ টেস্ট খেলার কথা রয়েছে উভয় দলের। তবে এই সিরিজ থেকে টেস্ট ম্যাচ বাদ দেওয়ার সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। কারণ হিসেবে জানানো হয়েছে আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। 

এবছরের শুরুর দিকে ক্রিকেট অপারেশন্সের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস বলেছেন, ‘‘আসলে আমরা দুটি টেস্ট বাতিল করতে যাচ্ছি না। ম্যাচ দুটো অবশ্যই খেলবো। তবে কখন খেলবো ওই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে।’ 

টেস্ট বাতিল হলে নতুন সূচিতে খেলা হবে, এমন কথা বিশ্বাস করার মানুষ খুবই কম। যেহেতু ফোকাস রাখা হচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সেহেতু টেস্ট না হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। খালি চোখে মনে হতে পারে এতে তো দেশের ক্রিকেটের লাভ। শান্ত-মিরাজরা প্রস্তুতি নিতে পারবে বড় দ্বৈরথের জন্য। তবে ক্ষতির জায়গাটা অন্য জায়গায়। 

জাতীয় সার্কিটে এমন অনেক ক্রিকেটার রয়েছে যাদের আয়ের বড় উৎস এই টেস্ট ম্যাচ। বিশেষ করে মুমিনুল হকের দিকেই যদি তাকান বুঝতে পারবেন অনেক কিছু। দেশের টেস্ট ক্রিকেটে বড় স্টার তিনি। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলে তো বটে জায়গা হয়না নিজ দেশের ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগেও। ফলে ঘরোয়া লিগ ও আন্তর্জাতিক টেস্ট তার আয়ের উৎস। 

শুধু মুমিনুল নয়, সাইফ হাসান-খালেদ আহমেদ অথবা তাইজুলদের আয়ের বড় উৎস এই টেস্ট ক্রিকেট। এমন অবস্থায় যদিও টেস্ট ক্রিকেটে বিসিবি বেশিই অনীহা প্রকাশ করে তাহলে তাদের ভবিষ্যত কি? 

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি নিতেই হবে। স্বাভাবিক ঘটনা এটি। তবে যারা পাইপলাইনে নাই তাদের দিয়েও তো টেস্ট ক্রিকেটটা চালিয়ে নেওয়া যায়। বিসিবির হয়তো আর্থিক ক্ষতি হতে পারে, তবে লাভবান তো দেশের ক্রিকেটাররাই হবে। 

 

-নট আউট/এমআরএস



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর

প্রথম ওয়ানডেতে হোঁচট খেল বিসিবি একাদশ

ভারতের এমএ চিরাম্বরম স্টেডিয়ামে সোমবার প্রথম ওয়ানডেতে মুখোমুখি হয়েছিল তামিলনাড়ু ক্রিক...

ভারত সিরিজের দল ঘোষণা বাংলাদেশের

জিম্বাবুয়ে সফরের দল থেকে বাদ পড়েছেন মোসাদ্দেক সৈকত, শরিফুল ইসলাম ও তাইজুল ইসলাম।

জয়ের স্বপ্ন দেখিয়ে হেরে গেল বাংলাদেশ

৭৪ রানের মধ্যে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪৫ রানের টার্গেটেই কঠিন বানিয়ে ফেলে ভারত।