ঢাকা | মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে নিদামানুরুর সেঞ্চুরিতে জয় পেল ডাচরা

নট আউট ডেস্ক
প্রকাশিত: ২২ মার্চ ২০২৩ ০৩:৩৮

দুর্দান্ত জয় পেল নেদারল্যান্ডস। ছবি: জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দুর্দান্ত জয় পেল নেদারল্যান্ডস। ছবি: জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট

নট আউট ডেস্কঃ হারারেতে শুরু হয়েছে স্বাগতিক জিম্বাবুয়ে ও নেদারল্যান্ডসের তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। যেখানে সিরিজের প্রথম ম্যাচে হয়েছে জমজমাট লড়াই। অবিশ্বাস্যভাবে ম্যাচে ফিরে শ্বাসরুদ্ধকর জয় তুলে নিয়েছে সফরকারী নেদারল্যান্ডস। 

হারারেতে এদিন আগে ব্যাট করে ক্লাইভ মাধান্দের হাফ সেঞ্চুরিতে ২৫৯ রানের সংগ্রহ গড়ে স্বাগতিক জিম্বাবুয়ে। জবাবে ৬৪ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় নেদারল্যান্ডস। শেষ দিকে তেজা নিদামানুরুর আনবিটেন সেঞ্চুরিতে ১ বল হাতে রেখে অবিশ্বাস্য জয় তুলে নেয় ডাচরা।

২৫০ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নামা নেদারল্যান্ডসের ওপেনিং জুটির স্থায়িত্ব ছিল মাত্র ১৫ রান পর্যন্ত। ওপেনার বিক্রমজিৎ সিং ফেরার পর, জিম্বাবুয়ে বোলারদের তোপে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় নেদারল্যান্ডস। দলীয় পঞ্চাশ পার করার আগেই দলটি হারায় ৪ উইকেট। 

ষষ্ঠ উইকেটে কলিন অ্যাকারম্যানকে নিয়ে খানিকটা লড়াই করেন নিদামানুরু। এই জুটিতে ভর করে দলীয় একশ পার করে ডাচরা। হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন অ্যাকারম্যান। এরপরেই সাজঘরে ফিরেন তিনি। এরপর শারিজ আহমেদকে নিয়ে খানিকটা লড়াইয়ের চেষ্টা করেন নিদামানুরু। আস্তে আস্তে এই দু'জনের ব্যাটে লড়াইয়ের আভাস দেয় ডাচরা।

হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন নিদামানুরু। তাকে দারুণ সঙ্গ দেন শারিজ। এই দু'জনের অবিচ্ছিন্ন শতাধিক রানের জুটিতে হারতে বসা ম্যাচে প্রাণ ফিরে পায় ডাচরা। ৩০ রান করা শারিজ রান আউটে কাটা পড়লে ভাঙে এই জুটি। এরপর সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে ডাচদের লড়াইয়ে রাখেন নিদামানুরু। জয়ের জন্য শেষ দুই ওভারে দলটির প্রয়োজন ছিল ১৯ রান। 

তেজা নিদামানুরু ও মেকেরিনের দৃঢ়তায় টান টান উত্তেজনার ম্যাচে ১ বল হাতে রেখেই জয় তুলে নেয় নেদারল্যান্ডস। এই জয়ে সিরিজে সিরিজে এগিয়ে গেল সফরকারীরা। ৯ চার ও ৩ ছক্কায় ৯৬ বলে অপরাজিত ১১০ রানের ইনিংস খেলেন নিদামানুরু। ২ চার ও ১ ছক্কায় ৯ বলে মেকেরিন করেন ২০ রান।

 

-নট আউট/টিএ



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর

বাবরের বিশ্বরেকর্ড, রান পাহাড়ে চড়ল পাকিস্তান

আগা সালমানকে নিয়ে দিনের বাকিটা শেষ করেন বাবর আজম।

হৃদয় জিতলেন সরফরাজ, ‘ড্র’ হলো করাচি টেস্ট

জিততে হলে শেষ ১১ ওভারে পাকিস্তানের প্রয়োজন ছিল ৪৯ রান, হাতে ৪ উইকেট।

‘তিন’ সেঞ্চুরিতে পাল্টা জবাব পাকিস্তানের

১১৪ রানে শফিক ফিরলে ভাঙে ইমামের সঙ্গে ২২৫ রানের জুটি৷